Artificial Intelligence

Artificial Intelligence

Artificial Intelligence (AI) বাংলায় যাকে বলা হয় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা । বর্তমান বিশ্বের অনেক জটিল কাজ এই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা দ্বারা করা হচ্ছে । ১৯৩৫ সালে যুক্তরাজ্যের যুক্তিবিদ ও কম্পিউটারের একজন পথিকৃৎ অ্যালান ম্যাথিসন টুরিংপ্রথম কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পর্কে ধারনা দেন । তিনি প্রথম দেখান যেখানে একটি গণনাকারী যন্ত্রের সাথে একটি স্ক্যানার মেশিন যুক্ত করেন এবং সীমাহীন স্মৃতিতে একটির পর একটি প্রতীক এগিয়ে যাচ্ছে এবং তারা একে অপরের গতি প্রতীকের থেকে প্রতীক বা সিমবল পড়তে পারছে ও পরবর্তীতে তা স্মৃতিতে জমাও রাখছে । এই কাজে তিনি স্ক্যানারের ক্রিয়া নির্দেশ করার জন্য একটি প্রোগ্রামের সাহায্য নেন । এটি পরবর্তীতে টুরিং এর সঞ্চিত প্রোগ্রাম নামে বহুল পরিচিত ।

Alan Turing
Alan Turing Pioneer of AI

বর্তমান বিশ্বের প্রতিটি কম্পিউটারে তার এই ধারণার উপর প্রতিষ্ঠিত মেশিন ব্যবহার করা হয় । Artificial Intelligence (AI) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় একটি ডিজিটাল কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত রোবট প্রায় একটি সাধারন বুদ্ধিমান মানুষের সম্পর্কিত অনেক কাজ করতে পারে । এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে মানুষ যেমন অনেক জটিল গাণিতিক হিসাব নিকাশ করা সহজ হয়েছে তেমনি অনেক গাণিতিক সমস্যার সমাধান এক মুহূর্তে করা যাচ্ছে । এইসব সাধারন কাজ ছাড়াও চিকিৎসা, সার্চ ইঞ্জিন, কণ্ঠ চিহ্নিত করন সহ বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়ারে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করা হচ্ছে । কৃত্রিম বুদ্ধির সাহায্যে একটি রোবট মানুষের মত কোন কিছুর সিদ্ধান্ত গ্রহন করা , চলাচলের উপর ভিত্তি করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত দেয়া, গতবিধি পর্যবেক্ষণ করার কাজও করছে । এদানিং জটিল কোন কাজের সিদ্ধান্ত গ্রহনের কাজে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করা হচ্ছে । যেমন মহাকাশ গবেষণা, মানুষের মস্তিষ্ক পড়ে সিদ্ধান্ত গ্রহন, জটিল কোন অপারেশন করতে, কল কাঁরখানার জটিল সব কাজে নির্ভুল অপারেশনে, আবহাওয়া, জিপিএস, ভূমিকম্প, রাসায়নিক কাজে, পরমাণু গবেষণার কাজে, কম্পিউটারে দাবা খেলায়, ক্রিকেট, ফুটবল সহ অনেক খেলায় (AI) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করা হচ্ছে । ১৯৫১ সালে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোগ্রামিং রিসার্চ দলের প্রধান ক্রিস্টোফার স্ত্রারচে প্রথম Artificial Intelligence (AI) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উপর প্রোগ্রাম তৈরি করেন । যেখানে তিনি একটি চেকার গেমকে ভালোভাবে কাজ করাতে সক্ষম হন ।  কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উপাদান সমূহ হল

 

artificial intelligence
artificial intelligence

১। অ্যাপ্লিকেশন

  • ইমেজ শনাক্তকরণ
  • কণ্ঠ শনাক্তকরণ
  • সাধারন ভাষা তৈরি করা
  • চ্যাটবোট
  • ভাবাবেগ তৈরি করা

২। মডেল

  • ডিপ লার্নিং
  • মেশিন লার্নিং
  • নিউরাল নেটওয়ার্ক

৩। সফটওয়ার ও হার্ডওয়্যার

  • জিপিইউএস
  • প্যারালাল প্রোসেসিং টুলস (যেমন স্পার্ক)
  •  ক্লাউড ডাটা স্টোরেজ এবং কম্পিউটার প্লাটফর্ম

৪। প্রোগ্রামিং লাঙ্গুয়াজ

  • পাইথন
  • টেনসরফ্ল
  •  জাভা
  • সি

https://searchenterpriseai.techtarget.com/definition/AI-Artificial-Intelligence

https://en.wikipedia.org/wiki/Artificial_intelligence

https://futureoflife.org/background/benefits-risks-of-artificial-intelligence/

https://www.britannica.com/technology/artificial-intelligence

Add a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।